সিক্ত অনুরণন



জোছনার রংধনু থেকে চন্দন এনেছি তোমায় সাজাব বলে,
আকাশের তারা এনেছি মালা গেঁথে তোমায় পড়াব গলে।
সাগর তলে রূপ নগরে বেঁধেছি তোমার জন্যে ছোট্ট বাসা,
বাঁকা চাদের কানের দুল পড়াব তোমায় সেই তো ছিল আশা।


নীল যমুনার জলে ভেজা নীলাম্বরী শাড়িতে ঢেকে দেহ লতা
জোনাকির দ্বিপ জ্বেলে মেঠো পথের ধারে বসে কইব যত কথা।
পারিজাতের গন্ধ ভরা ফাল্গুনি হাওয়ায় দুলব দুজনে ঝুলন মেলায়
দূর গগনে শুক্লা তিথির চাঁদ থাকবে চেয়ে তারাদের ছায়ায়।

বরষার মেঘ ডেকে আনে যদি শুভ্র বসনা ঝুর ঝুর কামিনী
হেমন্তিকা ছড়াবে হেসে গোধূলির পরে মধু গন্ধ ভরা মধু যামিনী।
ফাগুন বলবে এসে কি কথা বল এত শুনি শুধু দুজনার কানাকানি
সপ্ত ঋষি বলবে হেসে নিরালায় কইবে কথা নয়ত হবে জানাজানি।

শুকতারা ভালবেসে বসবে এসে সোহাগ করে তোমার কপালের টিপে
সাগরে ভেসে যাব তুমি আর আমি দুজনে মিলে দূর অচেনা দ্বীপে।
যেখানে শুধু ভালবাসব তুমি আর আমি নিরবধি কারণে অকারণে
দুরন্ত নীল ঢেউ দুলবে হাওয়ায় নীল জোছনায় সিক্ত অনুরণনে।

No comments:

Post a Comment

Follow by Email

Back to Top